অদ্ভুত-উদ্ভট


অদ্ভুত-উদ্ভট

এ কোথায় এলাম আমি?হঠাৎ দেখছি,হুবহু দেখতে তিনটা মানুষ একসাথে আকাশে পাখা মেলে উড়ে বেড়াচ্ছে! হঠাৎ করেই, এ আবার কোথায় এলাম? কেমন করে এলাম!যেখানে পাখিরা সমুদ্রে সাঁতার কাটছে!আর মাছেরা গাছের ডালে বসে আড্ডা দিচ্ছে! 

হঠাৎ করেই এখন আবার জঙ্গলে এলাম কি করে? ওই তো দেখতে পাচ্ছি,বাঘমামা তার বন্ধুদের সাথে জঙ্গলের ভিতর ফুটবল খেলছে!বাঘমামা আবার বড্ড ফাউল করছে —আরেহ্, এ কি হচ্ছে আমার সাথে! কোথায় আছি আমি, কোথায় যাচ্ছি আমি?আমার কিন্তু খুব ভয় করছে। চিৎকারও করতে পারছি না,গলা দিয়ে আওয়াজও বের হচ্ছে না তো?কি করি…

হচ্ছে কি এসব?এখন আবার বাড়িতে!বিছানায় বসে একটা অদ্ভুত রকমের বই পড়ছি,বইয়ের ভেতর এতই ঢুকে গেছিলাম বলেই কি,নাকি ঘুমিয়ে পড়েছিলাম এর মধ্যেই,কে জানে…এতটুকু সময়ের মধ্যে কেমন করে একবার এখানে আসছি আবার হঠাৎ করে দেখি অন্যজায়গায় দাঁড়িয়ে আছি —হচ্ছে কি?

হঠাৎ দরজার কলিংবেল বেজে উঠলো।আরও দু-তিনবার বেজে উঠলো,কেউ দরজা খুলছে না কেন?বাড়িতে কেউ নেই নাকি?আমাকেই খুলতে যেতে হলো দরজা।দরজা খুলতেই আমার চক্ষু চড়কগাছ!সামনে দাঁড়িয়ে আছে কতগুলো উদ্ভট রকমের প্রাণী।তারা নিজে থেকেই জানালো,তারা এলিয়েন,পৃথিবীতে ছুটি কাটাতে এসেছে!তাও আমাদের বাসায়–কোনো ঘর খালি আছে কি না দেখতে!তারা নাকি হোটেলে থাকতে পছন্দ করে না–ঠিক জমে না,তাদের ঘরোয়া পরিবেশ পছন্দ!এসব শুনে আমার মাথা ঘুরিয়ে পড়ার অবস্থা!নাহ্ অবস্থা না,এখন সত্যি সত্যিই মাথা ঘুরাচ্ছে, মনে হয় অজ্ঞান হয়ে যাচ্ছি!মাথাটা কেমন যেন করছে!দাঁড়িয়ে থাকতে পারছি না আর, পড়েই যাচ্ছি…যাহ্ পড়েই গেলাম!আর কিছু জানি না!আচ্ছা, আমি কি বেঁচে আছি? কেন হলো এসব আমার সাথে?


 

হঠাৎ করেই শুনতে পাচ্ছি মৃদুভাবে কেউ আমাকে ডাকছে—"অমি..অমি?"

আমি চকমকিয়ে তাড়াতাড়ি করে ঘুম থেকে উঠে বসলাম।মা ডাকছে।যাক বাবা,বেঁচে গেলাম—সবই স্বপ্ন ছিল।আমি ঠিকই আছি, কোথাও যাইনি আর কিছু হয়নিও আমার সাথে।

তখন ঘড়ির দিকে তাকিয়ে দেখি,সকাল ১০টার উপরে বেজে গেছে।স্কুলের সময় পার হয়ে গেছে।দেখে আমার মাথা গরম হয়ে গেল।স্বপ্ন থেকে তো বেঁচে গেলাম কিন্তু এখন মার হাত থেকে কে বাঁচাবে?এমন ঘুম ঘুমালাম আর এমন স্বপ্নই দেখলাম,যার জন্যে স্কুলের সময় পার হয়ে গেছে!

এবার মার হাতে উত্তম-মধ্যম খেয়ে স্বপ্নে দেখা ওই "অদ্ভুত-উদ্ভট" জিনিসগুলো বাস্তবেই দেখতে পাবো,চিন্তা নেই—কপালে দুঃখ আছে! 




 


Nipendra Biswas
তিনি এই গল্পটি পছন্দ করেছেন ।

প্রথম মন্তব্য লিখুন


মন্তব্য লেখার জন্য আপনাকে অবশ্যই লগ ইন করতে হবে


আপনার জন্য

কুলফিওয়ালা

কুলফিওয়ালা

কুলফি খেতে ভীষণ ভালোবাসে...

নীল দ্বীপ (পর্ব ৫)

নীল দ্বীপ (পর্ব ৫)

মৃন্ময় খেয়াল করে দেখল শু...

দৃষ্টিগোচর

দৃষ্টিগোচর

জীবনে অসফল এক ব্যাক্তি আ...

বিলাপ

বিলাপ

আচ্ছা আমরা কি ভালোবাসি?শ...

তুমি অনন্যা  (পর্ব ৬)

তুমি অনন্যা (পর্ব ৬)

রনির মন চাচ্ছে আবার দেখা...

শেষ

শেষ

      ফোন রিং হওয়ার শব্দ...

কবরস্থানের মাঠে একরাত

কবরস্থানের মাঠে একরাত

কবরস্থানের মাঠে একরাত লে...

অমাবস্যার রাত

অমাবস্যার রাত

গল্পটা খুব আগের না এইতো ...

~পিল্টু

~পিল্টু

রেলস্টেশনটার পিছনের দিকে...

করোনা

করোনা

নাম ছিলো তার করোনা। খুব ...

কে ছিল???

কে ছিল???

আমি আগে ৯ -১০ টার মধ্যেই...

আমি (পর্ব৫)

আমি (পর্ব৫)

বিচিত্র পৃথিবীর মাঝে বেঁ...

কয়েকদিন হাসপাতালে

কয়েকদিন হাসপাতালে

একবার আমার কয়েকদিন হাসপা...

পরীক্ষার পূর্বদিন

পরীক্ষার পূর্বদিন

সারাবছর ভালো করে পড়েনি প...

যখন সন্ধ্যা নামে

যখন সন্ধ্যা নামে

প্রতিদিন যখন সন্ধ্যা নাম...

চিরকুট

চিরকুট

  এই গল্পটা আমার না।এটা ...

ভয়ের রাত

ভয়ের রাত

ভয়ের রাত চিন্টুর শরীরটা ...

তুমি অনন্যা  (পর্ব ৫)

তুমি অনন্যা (পর্ব ৫)

রনি বললো," একটা কবিতা বল...

আমি (পর্ব২)

আমি (পর্ব২)

আজ পূর্ণিমা রাত।ছাদে একা...

সুবিমলবাবুর স্মরণীয় বাস জার্নি

সুবিমলবাবুর স্মরণীয় বাস জার্নি

১.সুবিমলবাবু অনেকদিন পর ...