নীল দ্বীপ (পর্ব ৭)


নীল দ্বীপ (পর্ব ৭)

মৃন্ময় বললো,"উনি আমাকে ভালোবাসলেও লাভ নেই।আমরা দুইজন দুইজনকেই অনেক ভালোবাসি।" "হুমম সেটাই রে।আর আমি কিন্তু কালই চলে যাচ্ছি।" "কালই যাবি?"
"হুম কাল নাকি আয়মানের ইন্টারভিউ আছে।" 
"ওহ হলে তো ভালো।" 
"হুমম।আচ্ছা তুই ট্রায়ার্ড অনেক।আমি চা নিয়ে আসি তোর জন্য।"
"যা।" 
 

মৃন্ময় সাদিকের কথা ভাবতে লাগলো।তবে শুভ্র লোকটাও খারাপ না।সহজ সরল মনের মানুষ। রাতে ঘুমানোর সময় দুইজন অনেক গল্প করতে করতে ঘুমিয়ে পড়লো।

 

সকালে আয়মান রেডি হয়ে ইন্টারভিউ দিতে গেল।চাকরিটাও হয়ে গেল।ভালো চাকরি পেয়ে গেসে আয়মান।আয়মান সবার প্ৰথমে হৃদিকে ফোন করলো।হৃদি ফোন ধরে বলল,"কি হলো বলো।" 
"কি আর হবে!" 
"মানে?" 
"মানে চাকরিটা আমি পেয়ে গেসি।"
খুশিতে মৃন্ময়কে জড়িয়ে ধরে বলল,"সত্যি?"
"হুমম সত্যি।এবার দেখ কিছুদিনের মধ্যে তোমার বাড়িতে বিয়ের প্রস্তাব দিবো।"
"আমি সেই আশাতে মনের দুয়ার খোলা রেখেছি।"

 "আচ্ছা রাখি।" 
"আচ্ছা।" 
হৃদি বললো,"আয়মানের চাকরি হয়েছে ভালো চাকরি পেয়েছে।" 
"ওহ তালে তো ভালো।এবার বিয়ের প্রস্তাব দিলেই হবে।" 
"তোরও হবে কিন্তু শুভ্র ভাইয়া।" 
"উনার জন্য মেয়ে আমি খুঁজবো।"
"তাই নাকি!" 
"হুমম ।" 
হৃদি ব্যাগ গুসাতে লাগলো।একটু পরেই চলে যাবে। হৃদি বের হতেই দেখলো আয়মান।হৃদি বললো,"তুমি এখানে?" 
"হ্যা চলো কোথায় যাই।" 
"চলো।"

 

হৃদি বের হবার একটু পরেই সাদিক তার বাবা মাকে সাথে করে নিয়ে এলো মৃন্ময় বাসায়।সবকিছু খুলে বললো সাদিকের মা।শুভ্র আগেই জানিয়েছিল ঘটনাটা।উনারা মৃন্ময়কে  আংটি পড়াতে এসেছেন।মেয়েকে খুব পছন্দ করলেন।আর দুইজন দুইজনকে খুব ভালোবাসি তাই কেউ কিছু বললেন না।রাজি হতে গেলেন।মৃন্ময় আংটি পরিয়ে সাদিকরা চলে গেল। পরদিন আয়মানও বিয়ের প্রস্তাব দিতে গেল হৃদির বাসায়।যেহেতু কেউ কাউকে ছাড়তে রাজি না তাই হৃদির বাড়ির সবাই রাজি হয়ে গেল।


fe
তিনি এই গল্পটি পছন্দ করেছেন ।

১টি মন্তব্য

fe

fe

এক বছর আগে

বাহ হৃদির বিয়ে হবে মৃন্ময়পরও😙😃


মন্তব্য লেখার জন্য আপনাকে অবশ্যই লগ ইন করতে হবে


আপনার জন্য

মিঠু

মিঠু

  আমি মিঠু। পুরো নাম মিঠ...

অপেক্ষা

অপেক্ষা

অপেক্ষা, এই জিনিসটা খুব ...

ভয়

ভয়

ছোট বেলার থেকেই আমি ছিলা...

নীল দ্বীপ

নীল দ্বীপ

           লেখক :ইসরাত ই...

আমরা তো সবাই মানুষ!!!!

আমরা তো সবাই মানুষ!!!!

তখন আমি ক্লাস 5 এ পড়ি, স...

যখন সন্ধ্যা নামে

যখন সন্ধ্যা নামে

প্রতিদিন যখন সন্ধ্যা নাম...

অমাবস্যার রাত

অমাবস্যার রাত

গল্পটা খুব আগের না এইতো ...

ছোটগল্প

ছোটগল্প

আমি গল্প লিখি। তবে লেখক ...

সে.....

সে.....

এক নিমষেই কি সব শেষ হয়? ...

প্রিয় জয়ন্ত স্যার

প্রিয় জয়ন্ত স্যার

তখন সবে হাইস্কুলে উঠেছি।...

আমি (পর্ব২)

আমি (পর্ব২)

আজ পূর্ণিমা রাত।ছাদে একা...

উধাও  || পর্ব -১

উধাও || পর্ব -১

৬৬ সালের মে মাস…. প্রমাণ...

অদ্ভুতুড়ে

অদ্ভুতুড়ে

কদিন আগে আমি পিসির বাড়ি ...

শেষ

শেষ

      ফোন রিং হওয়ার শব্দ...

প্রতিবিম্ব

প্রতিবিম্ব

আয়নার সামনে বসে নিজেকে দ...

রোহান বিল্লা

রোহান বিল্লা

     রোহান বিল্লা   লেখি...

বন্ধু

বন্ধু

রিজু,আমার বেস্ট ফ্রেন্ড।...

নীল দ্বীপ (পর্ব ৭)

নীল দ্বীপ (পর্ব ৭)

মৃন্ময় বললো,"উনি আমাকে ভ...

তুমি অন্যনা (পর্ব ৭)

তুমি অন্যনা (পর্ব ৭)

ইসরাত বললো,"ডিনার করেছেন...

অর্পন

অর্পন

ভোরের সূর্য উঠার ঠিক আগ ...