নীল দ্বীপ


নীল দ্বীপ

           লেখক :ইসরাত ইমরোজ

            পর্ব:০১

 

 মৃন্ময় ছাদে একা দাঁড়িয়ে আছে।উদাস মন তার।জীবনের চলার পথে একটু যেন বাধা পেয়েছে।পিছন থেকে হৃদি এসেছে তাকে চমকে দিলো।

মৃন্ময় বলল,"কিরে কখন এলি?" 

"এইতো এখন।এসে দেখি তুই নেই ।ফুফু বলল তুই নাকি ছাদে তাই ছাদে চলে এলাম।" 

"ওহ আচ্ছা।তোর তো এখন রেস্টের দরকার।জার্নি করে এসেছিস।" 

"হ্যা চল।" 

 

ঘরে ঢুকেই হৃদি ড্রেসটা চেঞ্জ করে বিছানায় শুয়ে পড়লো।ভাবতে ভাবতে ঘুমিয়ে পড়লো।রাতে মৃন্ময় হৃদিকে ডেকে তুললো। 

"চল হৃদি ছাদে যাই।"

 "ওকে ।তার আগে কফি করে আনি।দুইজনে গল্প করবো আর কফি খাবো।" "ওকে যা।" 

মৃন্ময় কফি বানিয়ে হৃদির হাতে একটা কাপ তুলে দিয়ে বলল,"চল ছাদে।" 

 

ছাদে জোৎসার আলো।মায়াবী চাঁদ।পূর্ণিমার রাত। 

মৃন্ময় বলল,"দেখ কত সুন্দর চাঁদ উঠেছে।" "হুমম।আচ্ছা মৃন্ময় তোর প্রেমিকের কি খবর?কোন খোঁজ মিললো তার?" 

মৃন্ময় হতাশ মুখে বলল,"নারে।তার কোনো খোঁজ নাই।" 

"তোকে কি ফাঁকি দিলো নাকি!" "আমি তো জানি না।আচ্ছা আয়মানের কি খবর চাকরি পেলো নাকি ?"

 "নারে এখনো পায়নি।বাসা থেকে বিয়ের চাপ দিচ্ছে।আমি রাজি হইনি।আয়মান কিছু করতে পারলে তাহলে কিছু একটা হতো।" "হুমম রে সবই কপাল।"

 হৃদি কফির দিকে তাকিয়ে বলল,"দেখি কি করা যায়।তোর জন্য ছেলে দেখছে না?" "খোঁজ করা শুরু করেছে।" 

"ওহ।" 

"হুমম।জীবনটাই বেদনার তোর আর আমার।" 

হৃদি দীর্ঘ নিঃশ্বাস ফেলে বলল,"হ্যা।আয়মানের কিছু একটা হয়ে যেত।" 

"চিন্তা করিস না হয়ে যাবে কিছু একটা।" "মৃন্ময় তুই তো সুন্দর গান বলিস।একটা বলতো।" 

"তোমাকে নিয়ে দেখা স্বপ্নের ভিড়ে, ছিল না কিছুর ঠাঁয় দুচোখের নীড়ে, স্বপ্নগুলোকে হঠাৎ কেড়ে যে নিলে, আমাকে যেন আঁধার পথে ঠেলে দিলে.. মৃন্ময় আর বলতে পারল।

 

চোখে পানি এসে গেল।কন্ঠস্বর ক্ষীণ হলো। "মৃন্ময় কাঁদিস না।দেখ স্বাভাবিক হ।" "ওকে।" 

 

গল্প করতে করতে রাত ১২ টা বাজলো।মৃন্ময় আর হৃদি ঘরে ঢুকে ডিনার করে ফেললো।তারপর দুইজনে হাসি আড্ডা দিতে লাগলো।মনে হলো কতদিনের সজীবতা ফিরে এলো।দুইজন মন খুলে হাসাহাসি নাচানাচি করল।

রাত ৩ টায় ঘুমিয়ে পড়লো। সকালের মিষ্টি রোদ হৃদির চোখে এসে লাগলো।ঘুমটা তখনি ভেঙে গেল।বিছানা উঠে বারান্দায় চলে গেল।মৃন্ময় এখনো ঘুমাচ্ছে।বারান্দায় দাঁড়িয়ে বিচিত্র মানুষকে দেখলে লাগলো হৃদি। মৃন্ময় ঘুম থেকে উঠে দেখলো হৃদি নেই।বারান্দায় এসে দেখলো হৃদি একা দাঁড়িয়ে আছে। 

"কিরে হৃদি কি করছিস?" 

"নারে কিছু না।এমনি দাঁড়িয়ে আছি।"

 "ওহ আচ্ছা।তুই মনে হয় এখনো ফ্রেস হাসনি।" 

"ওহ আচ্ছা ফ্রেস হয়ে নে।আমি ফ্রেস হবো।তারপর দুইজনে একসাথে ব্রেকফাস্ট করবো।"

 "ঠিক আছে চল।"


রিদা
fe
তারা এই গল্পটি পছন্দ করেছেন ।

১টি মন্তব্য

fe

fe

এক বছর আগে

দারুন হচ্চে নেক্সট তারাতাড়ি 🤗🤗


মন্তব্য লেখার জন্য আপনাকে অবশ্যই লগ ইন করতে হবে


আপনার জন্য

আমি (পর্ব৪)

আমি (পর্ব৪)

সকালের মিষ্টি রোদ আমার চ...

তুমি অন্যনা (পর্ব ৭)

তুমি অন্যনা (পর্ব ৭)

ইসরাত বললো,"ডিনার করেছেন...

তুমি অনন্যা (পর্ব ৩)

তুমি অনন্যা (পর্ব ৩)

পর্ব ৩:একটু এগুনোর পর শা...

ছোট দাদুর বাড়িতে কয়েকদিন.....(পর্ব ১)

ছোট দাদুর বাড়িতে কয়েকদিন.....(পর্ব ১)

ছোট দাদুর  বাড়িতে কয়েকদি...

কে তুমি  (শেষ পর্ব )

কে তুমি (শেষ পর্ব )

                   কে তু...

লায়লা

লায়লা

"তুমি ছুয়ে দিলে হায়, কিয...

হ্যাবলা

হ্যাবলা

গ্রামের নাম পলাশপুর।গ্রা...

সব পেশাই কি সমান???

সব পেশাই কি সমান???

সবাই বলে সব পেশাই সমান!স...

নীল দ্বীপ (পর্ব ৫)

নীল দ্বীপ (পর্ব ৫)

মৃন্ময় খেয়াল করে দেখল শু...

নীল দ্বীপ  ( পর্ব ৪)

নীল দ্বীপ ( পর্ব ৪)

মৃন্ময় বাসায় এলো।রুমে ঢু...

তুমি অনন্যা  (পর্ব ৫)

তুমি অনন্যা (পর্ব ৫)

রনি বললো," একটা কবিতা বল...

আমরা তো সবাই মানুষ!!!!

আমরা তো সবাই মানুষ!!!!

তখন আমি ক্লাস 5 এ পড়ি, স...

মাথা ব্যাথা

মাথা ব্যাথা

কপালের ডানপাশটা ব্যাথা ক...

তুমি অনন্যা  (পর্ব ৬)

তুমি অনন্যা (পর্ব ৬)

রনির মন চাচ্ছে আবার দেখা...

নীল দ্বীপ (পর্ব২)

নীল দ্বীপ (পর্ব২)

ব্রেকফাস্ট শেষে মৃন্ময় ত...

কেমন আছো তুমি

কেমন আছো তুমি

 নিলিকে আমি আমার মনের কথ...

প্রিয় জয়ন্ত স্যার

প্রিয় জয়ন্ত স্যার

তখন সবে হাইস্কুলে উঠেছি।...

আমি এমনই

আমি এমনই

যখন চারিপাশে অশান্তি অনু...

কে ছিল???

কে ছিল???

আমি আগে ৯ -১০ টার মধ্যেই...

শেষ

শেষ

      ফোন রিং হওয়ার শব্দ...